ব্রেকিং নিউজঃ এবার কপাল পুড়ছে সাব্বিরের!

প্রায় তিন বছর পর জাতীয় দলে ফিরেছেন সাব্বির রহমান, সেখানে কি করেছেন এই তিন বছরে? কেনই বা ফিরেছেন তিনি? এর পারফেক্ট উত্তর কি? দলে প্রয়োজন ছিল পরিবর্তনের,

আর সেকারণেই পরিবর্তনের অংশ হিসেবে দলে ফিরিয়ে আনা হয়েছিল সাব্বিরকে। সেখানে তিনি পারফরম্যান্স করছেন নাকি করছেন না, সেটা বোধহয় দেখার বিষয় ছিল না ম্যানেজমেন্টের জন্য। ওয়েস্ট ইন্ডিযে এ দলের হয়ে ভালো করছেন দুই ওয়ানডে ম্যাচে, আবারও ডাক পড়েছিল তার।

হঠাৎ করেই সাব্বির ফিরে এসেছেন জাতীয় দলে, কিন্তু সুযোগ পেয়ে সেটা কাজে লাগাতে পারেননি এই হার্ডহিটার ব্যাটসম্যান। সুযোগ দেয়া হয়েছিল তাকে ওপেনার হিসেবে, ৩ বছর পর জাতীয় দলে ফিরে তিন ম্যাচ খেলেছেন তিনি, প্রতিবারই ওপেনার হিসেবে। তবে একটাতেও সফলতার দেখা পায়নি তার ব্যাট! ফলাফল যেমনটা হওয়ার কথা ছিল, হল ঠিক তেমনটাই!

শোনা গেছে ধারাবাহিক ব্যর্থতার ফলে সাব্বিরের ওপর আস্থা হারিয়ে ফেলেছেন দলের কোচ। বিশ্বকাপের স্কোয়াডে জায়গা হয়েছে তার, থাকছেন সেখানে। তবে এর আগে যে বাংলাদেশের রয়ে গেছে একটি ত্রিদেশীয় সিরিজ, যেখানে নিউজিল্যান্ড এবং পাকিস্তান হতে যাচ্ছে টাইগারদের প্রতিপক্ষ। সেখানে কতটুকু ওপেনার হিসেবে সুযোগ পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে সাব্বির রহমানের? কোচের আস্থা কি এখনও রয়েছে তার ওপরে?

নিঃসন্দেহে বলা যায়, কিছুটা হলেও তার উপর আস্থা হারিয়ে ফেলার কথা কোচের। যিনি দলে এসেছেন কোন পারফরম্যান্স ছাড়া এবং এসে দেখাতে পারেননি কোন ঝলক। তার ওপর যদি আস্থা না হারানো হয়, তবে আস্তে হারাবেই বা কার উপর?

 

গুঞ্জনটা বেশ জোরালো আসন্ন সিরিজে তিনি থাকছেন না আর ওপেনার হিসেবে। সোনা গেছে সাব্বির এবং মেহেদী হাসান মিরাজ কে অন্তত তিন ম্যাচ ওপেনিংয়ে খেলা দেখার ইচ্ছা ছিল কোচ শ্রীধরন শ্রিরামের। সেখানে দুই ম্যাচে সফল ছিলেন মিরাজ, অথচ একটি ম্যাচেও নিজের সাফল্য দেখাতে পারেন নি সাব্বির। এরকম ব্যর্থতার পর আস্থা হারিয়েছে তার ওপর।

যদি জায়গা হারান সাব্বির সেক্ষেত্রে ওপেনার হিসেবে ফিরবেন কে? চার নম্বরে যাকে ব্যাটিং করানোর কথা ভাবছিল ম্যানেজমেন্ট, তাকেই নাকি আবার ওপেনিংয়ে ফিরিয়ে আনা হবে। যদিও এই কয়দিন তিন নম্বরে ব্যাটিং করেছেন লিটন, তবে সেটা সাকিবের অনুপস্থিতিতে। যেহেতু সাব্বির রহমান পারফরম্যান্স দেখাতে পারেননি, আর পরবর্তী সিরিজ এই দলে ফিরে আসবেন অধিনায়ক নিজে। সেক্ষেত্রে লিটন দাসের জায়গা হতে পারে সেই চিরচেনা ওপেনিং পজিশনে।

লিটন ওপেনার হয়ে ফিরলে লাভটা হবে বাংলাদেশেরই, কারণ যেহেতু সাব্বির রহমানের পারফর্ম করতে পারছেন না। ওপেনার হিসেবে জায়গা না হলে সেক্ষেত্রে কি দল থেকে বাদ পড়বেন সাব্বির? বাদ পড়লে কি এখানেই শেষ হতে পারে তার আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *