বিশ্বকে তাক লাগিয়ে ইংল্যান্ডের প্রস্তাবকে সরাসরি প্রত্যাখ্যান করলো ভারত-পাকিস্তান!

বিশ্বকাপ, চ্যাম্পিয়নস ট্রফি বা এশিয়া কাপের খেলায় মুখোমুখি হবে ভারত–পাকিস্তান, এরপর কয়েক মাস বা কয়েক বছর চলে যাবে। দুই দলের আবার দেখা হবে কোনো এক বৈশ্বিক বা মহাদেশীয় আসরে—এমনটাই হয়ে আসছে গত এক দশকে।

দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ডও জানে না আবার কবে শুরু হবে ভারত–পাকিস্তান দ্বিপক্ষীয় সিরিজ। ভারত–পাকিস্তানের নিয়মিত লড়াই না হওয়ার কারণটা রাজনৈতিক।

রাষ্ট্রীয় পর্যায়ের সিদ্ধান্ত নেই বলে এ নিয়ে ভাবতেই রাজি নয় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই), নীরব পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডও (পিসিবি)। তবে ভারত–পাকিস্তান দ্বিপক্ষীয় লড়াই নিয়ে ভেবেছে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)।

পাকিস্তান–ইংল্যান্ড চলমান টি–টোয়েন্টি সিরিজ দেখতে পাকিস্তানে গেছেন ইসিবির ডেপুটি চেয়ারম্যান মার্টিন ডারলো। যুক্তরাজ্যের পত্রিকা দ্য টেলিগ্রাফ জানিয়েছে, পিসিবি চেয়ারম্যান রমিজ রাজার সঙ্গে আলোচনায় যুক্তরাজ্যের মাটিতে ভারত ও পাকিস্তানের দ্বিপক্ষীয় সিরিজ আয়োজনের প্রস্তাব দিয়েছেন মারলো। যুক্তরাজ্যে বিপুলসংখ্যক দক্ষিণ এশীয় থাকায় তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ আয়োজন করা যায় বলে মত তাঁর।

ইংল্যান্ডের এই প্রস্তাবে প্রথমেই ‘না’ করে দিয়েছে পাকিস্তান। প্রস্তাবের সংবাদ নজরে আসার পর প্রত্যাখ্যান করেছে ভারতও। দুই দেশের ‘না’ বলার ঘটনা অবশ্য ভিন্ন।

ভারতের সঙ্গে খেলতে আপত্তি নেই পাকিস্তানের, তবে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে খেলতে রাজি নয় তারা। রমিজ রাজা ডারলোকে জানান, ইসিবির প্রস্তাবে তারা কৃতজ্ঞ। তবে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে খেলা আয়োজন মানে পিসিবির কাছে পেছনে হাঁটা।

২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলঙ্কা দলের ওপর হামলার পর টানা ছয় বছর কোনো টেস্ট খেলুড়ে দেশই পাকিস্তান সফরে যায়নি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট আয়োজন থেকে অঘোষিত নির্বাসনে চলে গিয়েছিল পাকিস্তান।

তারপর অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে দেশগুলোকে পাকিস্তান সফরে রাজি করিয়েছে পিসিবি। ইংল্যান্ড যার সর্বশেষ সংযোজন। এখন আবার নিরপেক্ষ ভেন্যুতে খেলতে যাওয়া মানে নিরাপত্তা–শঙ্কাকে পরোক্ষে অনুমোদন দেওয়া।

টেলিগ্রাফে সংবাদ প্রকাশের পর ইসিবির প্রস্তাব নিয়ে পিটিআইয়ের সঙ্গে কথা বলেন বিসিসিআইয়ের এক কর্মকর্তা। নাম প্রকাশ না করা ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘প্রথমত, ভারত–পাকিস্তান সিরিজ নিয়ে ইসিবি কথা বলেছে পিসিবির সঙ্গে, এটা কিছুটা অদ্ভুতুড়ে ব্যাপার।

আর পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ খেলার সিদ্ধান্ত বিসিসিআইয়ের হাতে নেই। এটা সরকারি সিদ্ধান্তের ব্যপার। এই মুহূর্তে আমাদের অবস্থান আগের মতোই। পাকিস্তানের সঙ্গে আমরা শুধু বহুজাতিক টুর্নামেন্টেই খেলব।’ ভারত–পাকিস্তান সর্বশেষ দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলেছিল ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে। দুই দেশ টেস্টে শেষবার মুখোমুখি হয়েছিল ২০০৭ সালে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *