অভিষেকেই ইতিহাসের পাতাই বাজিমাত জামালের

পাকিস্তানই সম্ভবত একটা দেশ, যারা ক্রিকেট ইতিহাসে জন্ম দিতে পারে না এমন কোনো ঘটনা হয়ত নেই। এই ধরুণ গতকাল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের পঞ্চম ম্যাচের কথা।

শেষ ওভারে ১৫ রান প্রয়োজন ইংলিশদের, অধিনায়ক বাবর আজমের বিশ্বাস অভিষিক্ত পেসার আমের জামালই পারবেন দলকে জেতাতে, তাই তো নিজের প্রথম ম্যাচেই আমেরের হাতে এমন কঠিন পরিস্থিতিতে বল তুলে দেন বাবর।

পরক্ষণে অধিনায়কের আস্থার প্রতিদানও দিলেন এই পেসার। শেষ ওভারে একটি ছয়ের বল ছাড়া বাকি পাঁচটি বলই করেছেন একজন অভিজ্ঞ বোলারের মতোই ইয়োর্কার। ফলে নাটকের শেষ দৃশ্যের হাসি হেসেছে আমের জামাল তথা পাকিস্তান দল, জিতেছে ৬ রানের ব্যবধানে।

এর আগে লাহোরে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে মোহাম্মদ রিজওয়ানের ফিফটিতে সবকটি উইকেট হারিয়ে স্কোরবোর্ডে ১৪৫ রান যোগ করে পাকিস্তান। মাঝারি লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতেই উইকেট হারাতে থাকে ইংলিশরা। যদিও অধিনায়ক মঈন আলী এদিনও পান ফিফটির দেখা, এক প্রান্ত আগলে রেখে শেষ বল পর্যন্ত দলকে রাখেন জয়ের মুখে।

তবে ম্যাচের শেষ ওভারে জয়ের জন্য ১৫ রান প্রয়োজন হয় ইংলিশদের। শেষ পর্যন্ত মঈন আলিদের ইনিংস থামে ৭ উইকেটে ১৩৯ রানে গিয়ে। ম্যাচ হারে ৬ রানে, ব্যক্তিগত ৫১ রান করে ক্রিজে মঈন অপরাজিত থাকেন।

এছাড়া ইংলিশদের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৬ রান করেন ডেভিড মালান। পাকিস্তানের হয়ে সর্বোচ্চ ২ উইকেট শিকার করেন হ্যারিস রউফ, এছাড়া ১টি করে উইকেট শিকার করেন সাদাব খান, ইফতেখার আহমেদ, আমের জামিল ও মোহাম্মদ নাওয়াজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *